সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

বারহাট্টায় হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ওমর ফারুক আহম্মদ (নেত্রকোণা জেলা প্রতিনিধি):- / ১১৮৭ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০২৩

ওমর ফারুক আহম্মদ (নেত্রকোণা জেলা প্রতিনিধি):-নেত্রকোণা বারহাট্টায় উপজেলা হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোকন কুমার সাহার সচেতনতামূলক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ইভটিজিং, বাল্যবিয়ে রোধ, সাইবার ক্রাইমসহ সামাজিক নানা বিষয়ে সচেতন করতে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জানা গেছে, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে জঙ্গিবাদ, মাদক, সাইবার ক্রাইম, ইভটিজিং এবং বাল্য বিয়ে নিয়ে সচেতন করতে বারহাট্টা থানা পুলিশের টিম বিভিন্ন স্কুল-কলেজে গিয়ে এই কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এরই অংশ হিসেবে হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী-শিক্ষক-অভিভাবক ও সংশ্লিষ্টদের নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মত বিনিময় করেন বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খোকন কুমার সাহা।অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ বকুল, প্রধান শিক্ষক মোঃ জুলফিকুর হায়দার মামুন, সাংবাদিক লতিবুর রহমান খান,রুকন জামান রুকন,আফজাল হাসান এবং ওমর ফারুক আহম্মদ প্রমুখ। বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোকন কুমার সাহা বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের নানা বিষয়ে সচেতন করতে এবং তাদের দিক-নির্দেশনামূলক পরামর্শ দেয়া হয়। আমরা উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে সরাসরি শিক্ষার্থীদের সাথে এভাবে সভা করছি। এতে করে শিক্ষার্থীরা সচেতন হচ্ছে। তারা তাদের পরিবার ও আশেপাশের লোকজনদেরও সচেতন করতে পারবে। যাতে করে অপরাধ কমিয়ে আনা সম্ভব বলে আশা করি। বারহাট্টায় হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী রিয়াদকে (১৪) মারধোর ও প্রধান শিক্ষক মোঃ জুলফিকার হায়দার মামুনকে হত্যার হুমকীর প্রতিবাদে একই বিদ্যালয়ের উশৃঙ্খল ও বখাটে শিক্ষার্থী তোফায়েল হোসেন তানিম (১৬) কে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার ও শাস্তির আওতায় আনার দাবীতে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে।বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, তোফায়েল হোসেন তানিম (১৬) ৯ম শ্রেণী শিক্ষার্থী। সে অত্যন্ত উশৃঙ্খল ও ঝগড়াটে। প্রায়ই অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সাথে ঝগড়া বিবাদে লিপ্ত থাকে। ১৬ আগস্ট সুসং ধোবাহালা গ্রামের আঃ রেজ্জাকের ছেলে ও হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র রিয়াদ মিয়া (১৪) গ্রামের চোরকে ছিনিয়া দেওয়ারকে কেন্দ্র করিয়া হারুরিয়া গ্রামের কামরুল ইসলামের ছেলে ও হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র তোফায়েল হোসেন তানিম বিদ্যালয়ের বারান্দায় এসে রিয়াদ মিয়াকে অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়।খবর পেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঘটনাস্থল এসে রিয়াদ মিয়াকে তোফায়েল হোসেন তানিম এর হামলা থেকে উদ্ধার করে। ঐ দিন বিকালে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করিয়া তোফায়েল হোসেন তানিম চাইনিজ স্প্রিং এর চাকু হাতে নিয়ে পুনরায় বিদ্যালয়ে প্রবেশ করিয়া রিয়াদ মিয়া কে পুনরায় হামলা করার জন্য ঘুরাফেরা করতে থাকে।বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জুলফিকার হায়দার মামুন চাইনিজ স্প্রিং এর চাকু নিয়ে ঘুরাফেরার কারণ জানতে চাইলে সে প্রধান শিক্ষকের সাথে উত্তেজিত হয়ে কথা-বার্তা বলতে থাকে।পরিশেষে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জুলফিকার হায়দার মামুনকে হত্যা করার হুমকী দিয়ে সে বিদ্যালয় ত্যাগ করে। বারহাট্টা থানার ওসি খোকন কুমার সাহা জানান, এ বিষয়ে হারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নিকট থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments Box


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ